ঝালকাঠিতে এবার মেয়ের পিঁড়ির আঘাতে বাবার মৃত্যু

ঝালকাঠি প্রতিনিধি :ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় এবার পারিবারিক কলহের জেরে কলেজছাত্রী মেয়ের ছুঁড়ে মারা পিঁড়ির আঘাতে বাবা খিতিশ চন্দ্র শীলের (৭০) মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১২ মে) সকালে উপজেলার তালতলা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, রাগের মাথায় ভাইয়ের উদ্দেশ্যে বোনের ছুঁড়ে মারা পিঁড়ি ছিটকে গিয়ে লাগে বাবার মাথায়। গুরুতর আহত খিতিশ চন্দ্রকে উদ্ধার করে কাঠালিয়া (আমুয়া) উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নেওয়ার পর দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জনান, সকালে খিতিশ চন্দ্র শীল তার ছেলেকে সারাদিন বাইরে ঘোরাফেরা না করে কাজকর্ম করতে বললে সে পিতার সাথে তর্কে লিপ্ত হয়। তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে কলেজ পড়ুয়া মেয়ে শুকলা রানী পুতুল (১৭) ক্ষিপ্ত হয়ে একটি বসার কাঠের পিঁড়ি ছুড়ে মারে।
কাঠের সেই পিঁড়ি ছিটকে গিয়ে সরাসরি বৃদ্ধ পিতা খিতিশ চন্দ্রের মাথায় লাগলে গুরুতর আহত হয়ে ঘটনাস্থলেই জ্ঞান হারায়। পরে পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে আমুয়া স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে দ্রুত বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
প্রসঙ্গত, এ ঘটনার একদিন আগে গত সোমবার (১১ মে) ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার কাঠিপাড়া এলাকায় মাদকাসক্ত জুয়াড়ি পুত্র বখাটে মাহফুজ আকন লাঠি দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে মা-বাবাকে গুরুতর আহত করে। পরে তাদের দুজনকেই বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসাধীন অবস্থার বাবা মোঃ ইসমাইল আকনের (৫২) মৃত্যু হয়। পরে ঘাতক ছেলে মাহফুজকে আটক করে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *