রৌমারী সীমান্তে বিএসএফ’র ককটেলে ৩ গরু পাচারকারী আহত

রাজীবপুর প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের রৌমারী সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিএসএফ’র ছোড়া ককটেলের বিস্ফোরণে বাংলাদেশি তিন গরু পাচারকারী গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

আহতদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে তাদের পারিবারিক সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে। ভারতীয় সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাব গরু পাচারের সময় বিএসএফ
সদস্যরা গরু পাচারকারীদের লক্ষ্য করে ককটেল ছোড়ে বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার দাঁতভাঙা ইউনিয়নের খেতারচর সীমান্তের ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানা গেছে। আহতদের পরিবার ও সীমান্ত এলাকার একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ভোররাতের দিকে বাংলাদেশি একদল গরু ব্যবসায়ি আর্ন্তজাতিক সীমানা পিলার ১০৫৫ এর নিকট খেতারচর সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে অবৈধভাবে চোরাই পথে গরু পাচারের
সময় ভারতের দ্বীপচর ক্যাম্পর টহলরত বিএসএফ সদস্যরা গরু পাচারকারীদের ধাওয়া করে কয়েকটি ককটেল ছুড়লে ককটেল বিস্ফোরণে
রফিকুল ইসলাম (৩৫), মনছুর আলী (৪০) ও ময়নাল হক (৩৭) নামে
৩ গরু পাচারকারী মারাত্মক ভাবে আহত হয়। আহত গরু পাচারকারীদের অন্যান্য পাচারকারীরা তাদের উদ্ধার করে গ্রামের পল্লী চিকিৎসকদের কাছে প্রাথমিক চিকিৎসার পর গোপনে তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। বর্তমানে তারা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহত ৩ জনের মধ্যে ২ জনের বাড়ি একই সীমান্ত এলাকা খেতার চর গ্রামে আর ময়নাল হকের বাড়ি কাউনিয়ার চর গ্রামে বলে জানা গেছে। পুলিশ ও বিজিবির ভয়েই আহত গরু পাচারকারীরা গোপনে রংপুরে চিকিৎসার জন্য গেছে এমন তথ্য জানিয়েছেন অন্য গরু পাচারকারীরা। আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে লাকু মিয়া ও আব্দুল বারেক মুন্সী আহতের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। এ বিষয়ে দাঁতভাঙ্গা বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার জয়েন উদ্দিন বলেন,বিএসএফ’র ককটেল বিস্ফোরণে ৩ বাংলাদেশী আহত হওয়ার খবর আমরা শুনেছি তবে কেউ আমাদের অবহিত করেনি। বিজিবির পক্ষ থেকে বার বার চোরাচালান না করতে বলা হলেও কিছু চোরাকারবারী অধিক মুনাফার লোভে এই কাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *