প্রেমের টানে বাংলাদেশে আসা ভারতীয় তরুনীকে বিএসএফ’র কাছে ফেরত দিলো বিজিবি

ফুলবাড়ি(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
প্রেমের সম্পর্কের কারণে বাংলাদেশি এক তরুণের হাত ধরে ভারত থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে ভারতীয় তরুণী শিউলি খাতুন। অবৈধ পথে বাংলাদেশে প্রবেশ করলেও প্রেমিকের সাথে বাস করা হয়নি তার। 

অভিভাবকদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) কে বিষয়টি অবহিত করলে বিজিবি বিষয়টি সমাধানে তৎপর হয়ে ওঠে। অবশেষে ওই ভারতীয় তরুনীকে উদ্ধার করে বিএসএফ’র কাছে হস্তান্তর করেছে বিজিবি।

সোমবার বিকাল ৪টায় লালমনিরহাট ১৫ বিজিবির কাশিপুর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার জহিরুল ইসলাম ও ভারতীয় ৩৮-বিএসএফ কুর্শাহাট ক্যাম্পের  কোম্পানি কমান্ডার এস অাই যতিন্দ্র শিংয়ের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এসময় দুই দেশের জনপ্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন। 

২০ মিনিটের পতাকা বৈঠক শেষে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশে( বিজিবি)  ভারতীয় বিএসএফের হাতে ওই তরুণীকে হস্তান্তর করা হয়েছে। বিজিবি ১৫ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে.কর্নেল তৌহিল-উল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ভারতীয় ওই তরুণীর নাম শিউলি খাতুন ( ১৭)। সে ভারতের কোচবিহার জেলার দিনহাটা থানার থরাইখানা গ্রামের সুবেদ শেখের মেয়ে বলে জানায় বিজিবি।

বিজিবি জানায়, গত ২৯ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় নাগরিক শিউলি খাতুনকে প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে বাংলাদেশের ফুলবাড়ী উপজেলার আজোয়াটারি মিস্ত্রিটারী গ্রামের আবুল মিয়ার ছেলে রুবেল  শেখ (২২) বাংলাদেশে নিয়ে আসে। ভারতীয় ওই তরুণীর পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি কুর্শাহাট ক্যাম্পের  বিএসএফকে জানালে বিএসএফ তা কাশিপুর ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যদেরকে অবহিত করে ভারতীয় তরুণীকে ফেরত পাঠাতে অনুরোধ জানায়। 

পরে বিজিবি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ জনগণের সহায়তায় সোমবার দুপুরে ফুলবাড়ীর গংগাহাটের অজোয়াটারী গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য জামাল উদ্দিনের বাড়ী থেকে  ভারতীয় তরুণী শিউলিকে উদ্ধার করে। ভারতীয় তরুণীকে উদ্ধারের পর সোমবার বিকালে বিজিবি ও বিএসএফ কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠকের মাধ্যমে ওই তরুনীকে বিএসএফ’র কাছে হস্তান্তর করে বিজিবি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *