ঝিনাইদহ ডিবি ওসি’র স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদক’র মামলা

এইচ,এম ইমরান, ঝিনাইদহ :
শৈলকুপা থানা ও ঝিনাইদহ ডিবি পুলিশের সাবেক ওসি এম.এ হাসেম খানের স্ত্রী মাহফিজা বেগম চম্পার বির“দ্ধে মামলা করেছে দুনর্ীতি দমন কমিশন (দুদক)। মামলা নং ০২, তারিখ ০২ মার্চ ২০।
সংশি­ষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সম্পদ বিবরণীতে মিথ্যা তথ্য প্রদান ও আয় বর্হিভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদক আইন ২০০৪ এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারায় মামলাটি করেন দুনর্ীতি দমন কমিশন যশোর সমন্বিত জেলা কাযার্লয়ের সহকারী পরিচালক শহিদুল ইসলাম মোড়ল।
দুনর্ীতি দমন কমিশন (দুদক) যশোর কোর্টের বিজ্ঞ পিপি সিরাজুল ইসলাম জানান, এম.এ হাসেম খানের স্ত্রী মাহফুজা বেগম চম্পার নামে দুনর্ীতি দমন কমিশন (দুদক) সম্পদের নোটিশ জারি করে। নোটিশ মোতাবেক হাশেম খানের স্ত্রী মাহফুজা বেগম চম্পা গত ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে সম্পদের বিবরণ দুনর্ীতি দমন কমিশনে দাখিল করেন। সম্পদ বিবরণীতে চম্পা তার দখলে থাকা ৬৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ’ ৩৩ টাকার সম্পদ গোপন করেন। গোপনকৃত সম্পদ অর্জনের জন্য তিনি ডেলটা ব্র্যাক হাউজিং ফাইন্যান্স কপোর্রেশন হতে ৫০ লাখ টাকা লোন গ্রহন করেছেন।
অথচ তদন্তকালে দেখা যায়, তার আয় বর্হিভূত সম্পদ ৬৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ’ ৩৩ টাকার সম্পদ গোপন করে ও ১৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ’ ৩৩ টাকার জ্ঞাত আয় বর্হিভূত সম্পদ অর্জন করে নিজ দখলে রেখে দুনর্ীতি দমন কমিশন আইন ২০০৪ এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করে।
দুনর্ীতি দমন কমিশন (দুদক) সুত্রে জানা যায়, যশোর দুদকের ই.আর নং ৬/২০১৯ এর অনুসন্ধানে রেকর্ডপত্র পর্যালোচনা করে দেখা যায়, এম.এ হাসেম খান ১৯৭৩ সালের ৮ই ফেব্র“য়ারি পুলিশ কনেষ্টবল হিসেবে পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন। ১৯৮৬ সালে এস.আই এবং ১৯৯৬ সালে পুলিশ পরিদর্শক পদে পদোন্নতি হয়।
সম্পদ অনুসন্ধানকালে তার স্ত্রীর নামে ও দখলে বেশকিছু সম্পদের তথ্য পাওয়া যায়। যা তার স্ত্রীর আয় বর্হিভূত। যে কারনে মাহফুজা বেগম চম্পার নামে সম্পদ বিবরণী নোটিশ জারি করে দুনর্ীতি দমন কমিশন (দুদক)। সেই মোতাবেক মাহফুজা বেগম চম্পা গত ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে তার সম্পদ বিবরণী দুনর্ীতি দমন কমিশন (দুদক) এ দাখিল করে। দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণী যাচাই বাছাই করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য ১৩ ফেব্র“য়ারী ২০১৯ তারিখে নির্দেশ দেন। যাচাই বাছাই কালে রেজিষ্ট্রি অফিস, ভূমি অফিস, তহশিল অফিস হতে প্রাপ্ত তথ্য ও মাহফুজা বেগম চম্পার স্বামী এম.এ হাসেম খান কতর্ৃক সরবরাহকৃত কিছু রেকর্ড পত্র অনুসন্ধানে দেখা যায়, মাহফুজা বেগম চম্পার নামে তার দখলে অত্রসাথ সংযুক্ত ছকে বর্নিত সম্পদ থাকা শর্তে তিনি দুনর্ীতি দমন কমিশনে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরনীতে উলে­খ না করে গোপন করেন। এমনকি বর্ণিত সম্পদ তার দখলে থাকার বিষয়ে চম্পার বক্তব্য গ্রহণ করার জন্য দুদক দপ্তরে এম.এ হাসেম খান ও তার স্ত্রী মাহফুজা বেগম চম্পার নামে অফিসার ইনচার্জ খুলনা থানা, কেএমপি খুলনা এবং অফিসার ইনচার্জ খিলগাঁও, ঢাকা- ১২১৯ এর মাধ্যমে নোটিশ জারি করে।
মাহফুজা বেগম চম্পা গত ১৫ জুন ২০১৯ তারিখে নোটিশের কপি নিজে স্বাক্ষর করে বুঝে নিলেও দুদক কার্যালয়ে বক্তব্য দিতে আসেনি এমনকি লিখিতভাবে কোন বক্তব্য প্রেরণ করতে সক্ষম হয়নি। তাই সম্পদ অনুসন্ধানে দেখা যায় মাহফুজা বেগম চম্পা তার দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে তার দখলে থাকা ৬৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ’ ৩৩ টাকার সম্পদ গোপন করে মিথ্যা তথ্য দুনর্ীতি দমন কমিশন (দুদক) এ দাখিল করে। এছাড়া তিনি ঢাকা নিউ মাকের্ট থানাধীন ধানমন্ডি মৌজায় নিউ মাকের্ট সিটি কমপে­ক্স নামে আবাসিক ভবনের ৮ তলায় ২৫০৫ বর্গফুটের এ-৬ নং ফ্লাটটি ক্রয় করেন। যার দলিল নং ৪০১ তারিখ ২৮ জানুয়ারী ২০১৯। ফ্লাটটি ক্রয়ের জন্য তিনি ডেলটা ব্র্যাক হাউজিং ফাইন্যান্স কপোর্রেশন হতে ৫০ লাখ টাকার ঋণ গ্রহন করেন বিধায় ৬৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ’ ৩৩ টাকার মধ্যে ঋনের ৫০ লাখ টাকা বাদ দিলে ১৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ’৩৩ টাকা তার আয় বর্হিভূত সম্পদ মর্মে যাচাইকালে প্রতিয়মান হয়েছে। দাখিলকৃত সম্পদ গোপন করে মিথ্যা তথ্য ও ১৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩শ’৩৩ টাকার আয় বর্হিভূত সম্পদ অর্জন করে নিজ দখলে রাখার অপরাধে বিজ্ঞ সিনিয়র স্পেশাল জজ (যশোর) আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়া মামলাটি তদন্তকালে কেউ জড়িত থাকলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে বলে দুদক জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *