ঝালকাঠিতে অবৈধ শিশু খাদ্য ও ডিটারজেন্ট তৈরীর কারখানাকে ৮০,০০০ টাকা জরিমানা

মোঃ মনির হোসেন ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠি জেলার নলছিটি থানধীন ষাটপাকিয়া এলাকায় একজন অসাধু ব্যবসায়ী অবৈধ শিশু খাদ্য ও ডিটারজেন্ট তৈরী করে প্রতারণার মাধ্যমে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। এমন সংবাদ প্রাপ্তিতে র‌্যাব-৮, বরিশালের একটি আভিযানিক দল ঐ এলাকায় জনাব মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট, নলছিটি, ঝালকাঠি এর সমন্বয়ে ভেজাল বিরোধী মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে এবং হাতেনাতে কারখানার মালিক মোঃ মীর ইমদাদুল ইসলাম(৩২), পিতাঃ মীর শফিকুল ইসলাম, সাংঃ ষাটপাকিয়া, থানাঃ নলছিটি, জেলাঃ ঝালকাঠিকে আটক করে। সে সহজ সরল মানুষকে বিভিন্ন প্রতারণার মাধ্যমে তার কারখানায় তৈরী ভেজাল শিশু খাদ্য এবং অবৈধ ডিটারজেন্ট এর ব্যবসা করছে যা মানুষের শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর এবং বিপজ্জনক। তার কারখানা তল্লাশী করে বিভিন্ন কোম্পানীর মনোগ্রাম এবং মোড়ক পরিবর্তন করে সরকারী অনুমোদন ব্যতিত শিশু খাদ্য এবং ডিটারজেন্ট পাওয়া যায়। কারখানার মালিক মীর ইমদাদুল ইসলাম তার উৎপাদিত পণ্যের স্বপক্ষে কোন বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হয় এবং মোবাইল কোর্টের সামনে তার দোষ স্বীকার করে। মোবাইল কোর্টের ম্যাজিস্ট্রেট আটককৃত মোঃ মীর ইমদাদুল ইসলাম(৩২)কে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের অধীনে ৮০,০০০/- টাকা জরিমানা আদায় করেন ও কারখানাটি সিলগালা করে দেন এবং পরবর্তীতে এরূপ অবৈধ কাজ না করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। পরবর্তীতে জনাব মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট, নলছিটি, ঝালকাঠি কর্তৃক জব্দকৃত সকল অবৈধ শিশু খাদ্য ও ডিটারজেন্ট জনসম্মুখে ধ্বংস করা হয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন র‌্যাবের এ ধরনের কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *