কুড়িগ্রামে বোরোর মাঠে সবুজের সমারোহ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

চলতি মৌসুমে বোরোর আবাদ ভালো হয়েছে। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন কুড়িগ্রামের কৃষকরা। নিয়মিত পরিচর্যাসহ কীটনাশক প্রয়োগ করে বোরো ধানের খেত ভালো রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।

এখন পর্যন্ত বোরো খেতের কোন প্রকার ক্ষতি না হলেও আবহাওয়া অনুকূলে না থাকলে খেত নষ্ট হওয়াসহ উৎপাদন খরচ বেড়ে যাওয়ায় চিন্তিত হয়ে পড়েছেন এ অঞ্চলের বোরো ধান চাষিরা।

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, কুড়িগ্রাম জেলায় বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল, ১ লক্ষ ১১ হাজার ২০০ হেক্টর জমি। আবাদ হয়েছে ১ লক্ষ ১৫ হাজার ১১০ হেক্টর জমিতে।

কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের কৃষক, আমিনুল ইসলাম (৫০) মো.বাদশা মিয়া(৫৫) জানান, গতবারের তুলনায় এবার বোরো ধান খুব ভালোই হচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে, এ বছরও ফলন ভালো হবে। সেই সঙ্গে ধানের দাম যদি ভাল হয় তাহলে কৃষকরা লাভবান হতে পারবে। উলিপুর উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের নুরবক্ত মিয়া (৪৬) ধানচাষি কৃষক বলেন, এবার বোরোর আবাদ খুব ভালো দেখা যাচ্ছে। আবহাওয়া যদি ঠিক থাকে তাহলে ভালো ফলনের আসা করছি। গত বন্যায় যে ক্ষতি হয়েছিল তা একটু হলেও পুষিয়ে নিতে পারব আমরা

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক, ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, গত বছরের চেয়ে এ বছর বোরো চাষের ফলন ভাল হয়েছে। আশা করছি আবহাওয়া অনুকূল থাকলে কৃষকরা ভালো ফলন পাবে এবং দামও ভাল পাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *