ভুরুঙ্গামারীতে মহিদেব যুব সমাজ কল্যাণ সমিতির জরুরী খাদ্য ও ঔষধ সামগ্রী বিতরণ


ভুরুঙ্গামারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ
ভুরুঙ্গামারীতে বেসরকারী সংস্থা মহিদেব যুব সমাজ কল্যাণ সমিতির বাস্তবায়নে নেটজ-বাংলাদেশ ও বিএম জেড এর আর্থিক সহায়তায় ভুরুঙ্গামারী প্রকল্প অফিসের উদ্যোগে বাংলাদেশের বঞ্চিত অঞ্চল সমুহে ক্ষুধা ও দারিদ্র বিমোচন (সুকাল) প্রকল্পের অধিনে করোনা ভাইরাস মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্থ ২য় দিনে ৩৫৬ জন সদস্যদের মাঝে জরুরী খাদ্য ও ঔষধ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার উপজেলার পাটেশ্বরী বরকতিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জরুরী খাদ্য ও ঔষধ বিতরণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুন্নবী চৌধুরী খোকন। বিশেষ অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সোনাহাট ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক সরকার, সংস্থার ভুরুঙ্গামারী প্রকল্প ম্যানেজার আব্দুল মান্নানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় পাইকেরছড়া ইউনিয়নের ২০৬ জন এবং আন্ধারীঝাড় ইউনিয়নের ১৫০ জন প্রকল্পের ক্ষতিগ্রস্থ সদস্যদের মাঝে প্রত্যেককে ২০ কেজি চাউল,৫ কেজি গোল আলু,২ কেজি মসুর ডাল,২ কেজি বিশুদ্ধ লবণ,১ লিটার সোয়াবিন তেল,১ টি কাপড় কাচা সাবান,২ টি মাস্ক,২ পাতা প্যারাসিটামল ও ৫ টি খাবার স্যালাইন । বিতরণের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সংস্থার টেকনিক্যাল অফিসার আব্দুস সবুর,মাঠ সহায়ক আফসার আলী, আসাদুজ্জামান আসাদ,শ্রী মতি কনিকা রায়,নজরুল ইসলাম,সফিকুল ইসলাম ও আরিফুর রহমান প্রমুখ। প্রকল্প ম্যানেজার আব্দুল মানান জানান, মহিদেব যুব সমাজ কল্যাণ সমিতি ভুরুঙ্গামারী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে সুনামের সাথে দারিদ্র বিমোচনে কাজ করে যাওয়ায় অনেক হতদরিদ্রদের জীবনমান উন্নয়নে বিভিন্ন সাহায্য সহযোগীতা করে আসছে। সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও করোনা মহামারীতে প্রকল্পের সদস্যরা কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। প্রকল্পের সদস্যদের করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধি কল্পে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে তাদের এই জরুরী খাদ্য ও ঔষধ সামগ্রী প্রদান করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে উপজেলার প্রকল্পভুক্ত ৬ টি ইউনিয়নের প্রকল্পের ক্ষতিগ্রস্থ ১১০০ জন সদস্যদের এই জরুরী খাদ্য ও ঔষধ সামগ্রী প্রদান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *