ফুলবাড়ী থানাকে জনগণ বান্ধব করেছেন ওসি রাজীব কুমার রায়


নূরনবী সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:
কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী থানাকে জনগণ বান্ধব করে তুলেছেন সাম্প্রতিককালের করোনা যুদ্ধে জয়ী হওয়া ওসি রাজীব কুমার রায়। তিনি গত ১৭ জনুয়ারি ২০২০ তারিখে ফুলবাড়ী থানায় যোগদান করেছিলেন। এই অল্প কয়েক দিনে সেবাদানের মাধ্যমেই আস্থা কুড়িয়েছেন জনসাধারণের। অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে গরিব অসহায় মানুষকে আইনি সহায়তা দিয়ে চলছেন। কোনো প্রকার দালাল ছাড়াই সাধারন মানুষ থানায় গিয়ে সরাসরি ওসির কাছে পরামর্শ ও আইনি সহায়তা নিতে পারছেন। সরাসরি শুনছেন অভিযোগ। ঘটনার সত্যতা যাচাই করে দিচ্ছেন আইনি সহায়তা। ওসির সঙ্গে খোলামেলাভাবে কথা বলতে পেরে খুশি সব শ্রেণি-পেশার স্থানীয় জনগণ। ঝামেলা ছাড়াই খুব সহজে ওসি’র সাথে যোগাযোগ ও সেবা পাওয়ায় সাধারন মানুষের আস্থা ফিরে এসেছে ফুলবাড়ী থানা পুলিশের প্রতি।

সাম্প্রতিককালের করোনাভাইরাস মহামারীতে সাধারন মানুষকে সেবা দিতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। গত ৭ মে/২০ কোভিড-১৯ পজিটিভ রিপোর্ট এসেছিল তার। প্রায় ৪০ দিন প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন ও হোম কোয়ারেন্টাইন শেষে সুস্থ হয়ে আবারও ফিরেছেন কর্মস্থলে। সুস্থ হয়ে ফেরার পরও থেমে যান নি এই করোনাকালের সম্মুখযোদ্ধা। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, মাদক বিরোধী অভিযান সহ অব্যাহত রেখেছেন সাধারন মানুষের সেবা প্রদান । মাদকের বিরুদ্ধে রয়েছে তার কঠোর অবস্থান। উপজেলাকে মাদকমুক্ত করতে নিয়মিত অভিযান চালিয়ে যাচ্ছেন। মাদক ব্যবসায়ীরা সহ বিভিন্ন অপরাধী ধরাও পড়তেছেন প্রতিনিয়ত।

থানায় সেবা নিতে আসা নাগেশ্বরী উপজেলার নুরুজ্জামান মিয়া বলেন, থানায় এসে ডিউটিরত একজন পুলিশকে বললাম আমি ওসি স্যারের সাথে দেখা করবো। তিনি আমাকে স্যারের কক্ষ দেখিয়ে দিলেন। দরজার সামনে যেতেই আমাকে ভেতরে ডাকলেন এবং সমস্যার কথা শুনলেন। পরে লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরামর্শ দিলেন। খুব ভালোই লাগলো কথা বলে। এমন অফিসারই তো চাই। তারা মনে করেন, এভাবে সাধারণ মানুষ পুলিশের কাছে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারলে তা সবার জন্যই কল্যাণকর হবে।

ওসি রাজীব কুমার রায় জানান, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে পুলিশের স্লোগান হচ্ছে ‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার’। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আমাদের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চাচ্ছেন পুলিশ আরও জনবান্ধব হোক। আমরা আমাদের দায়িত্ব থেকেই সাধারন মানুষকে সেবা প্রদান করে চলছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *