পীরগঞ্জে ধর্ষনের অভিযোগে একজন জেল হাজতে

পীরগঞ্জ, রংপুর থেকে সরকার বেলায়েত ঃ
রংপুরের পীরগঞ্জে ধর্ষণের অভিযোগে একজন গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করেছে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ। গত ২৪ আগষ্ট/২০২০ইং তারিখে দিবাগত রাত আনুমানিক ২ঘটিকায় উপজেলার ১৫ নং কাবিলপুর ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। ধর্ষক বিমাতা ভাই উক্ত গ্রামের হাফিজুর রহমান মুন্সির পুত্র সিদ্দিক রহমান (৪২) বলে জানাযায়। পুলিশ ধর্ষক বিমাতা ভাইকে গ্রেফতার পুর্বক জেল হাজতে প্রেরন করেছে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানাযায়-ঘটনার দিন সেলিনা বেগম (৩০) স্বামীর বাড়ী উপজেলার শ্রীরামপুর থেকে ইসলামপুরে বাবার বাড়ীতে বেড়াতে আসে। রাতে খাওয়া শেষে বাড়ীর সকলের ন্যায় আলাদা একটি ঘরে শুয়ে পরে। একটি ঘরে একা থাকার সুযোগে বিবাহিত লম্পট বিমাতা বড়ভাই ঘরে প্রবেশ করে ঘুমান্ত অবস্থায় জোর পুর্বক ধর্ষণ করতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে সেনিলার আত্মচিৎকারে বাড়ীর লোকজন এগিয়ে আসলে লম্পট ধর্ষক পালিয়ে যায়। পরে বিষয়টি অভিযোগকারী গ্রামের লোকজনদের জানালে উক্ত গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের পুত্র মধুমিয়া, মৃত ছানা উল্ল্যার পুত্র মোন্তাজ আলী, মকবুল মুন্সির পুত্র এরসাদ আলীসহ ধর্ষকের লোকজন বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করার জন্য ভয়ভীতি সহ প্রানণাশের হুমকি প্রদান করে। সকল ভয়ভীতি উপেক্ষা করে গত ৪ সেপ্টেম্বর পীরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষন মামলা করে, মামলা নং-৭। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই গোলাম মোস্তফা ঘটনা স্থল পরিদর্শন পুর্বক ধর্ষক সিদ্দিককে গ্রেফতার জেল হাজতে প্রেরন করে।
লম্পট ধর্ষক সিদ্দিক গ্রেফতারের পর থেকে বাদী ও বাদীর আপন ছোট ভাই জহিরুল ইসলাম বর্তমানে নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে বলে জানায়। ধর্ষকের পক্ষের লোকজন তাদের আরও বড় ধরনের ক্ষতি সহ প্রানণাশের হুমকি প্রদান করছে বলে জানায় তার ছোট ভাই।
এ ব্যাপারে উক্ত ধর্ষণ মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা বলেন- পুলিশ প্রশাসন ধর্ষিতা ও তার পরিবারকে ন্যায় বিচার সহ নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবে। প্রয়োজনে হুমকি দাতাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে। এলাকাবসী এ লোমহর্ষক জঘন্য এবং ইসলাম বিরোধী অপরাধীর দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *