ঝালকাঠিতে করোনা প্রতিরোধে প্রস্তুত জেলা পুলিশের ” কুইক রেসপন্স টিম “

ঝালকাঠি প্রতিনিধি :বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়া নোবেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও গড়ে উঠেছে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ব্যবস্থা। আর দেশে এই ভাইরাস প্রতিরোধ ব্যবস্থায় অন্যতম ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ। (কোভিড-১৯) নোবেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী প্রথম থেকেই সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে বিভিন্ন সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেছে। তারাই ধারাবাহিকতায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বর্তমান ঝালকাঠি জেলায় জেলা পুলিশ বিভিন্ন ধরনের সচেনতামূলক কর্মকাণ্ডসহ বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে বর্তমানে জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে এ্যাম্বুলেন্স ও গাড়ী সহ প্রয়োজনীয় উপকরন নিয়ে ২৪ ঘন্টা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে গঠন করেছে ” কুইক রেসপন্স টিম “। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জেলা পুলিশ প্রথম থেকে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে আসছে। জেলার সকল পৌরসভা, উপজেলা শহর সহ ইউনিয়ন পর্যায় জনসমাগম না করে প্রচারণা চালানোর কৌশল হিসেবে মাইকিং,স্থানীয় ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পেইজ ব্যবহার করে করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে জনসাধারণকে সচেতন করছে।

করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধ সংক্রান্তে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের পক্ষ থেকে পুলিশের প্রতিটি ইউনিটকে বিশেষ নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। সেই নির্দেশনা মোতাবেক ইউনিটগুলো বিভিন্ন জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি দেশে আতংক সৃষ্টি না হয় সেই দিকেও রয়েছে পুলিশের বিশেষ টিম। আর পুলিশ হেড কোয়াটারের নির্দেশনা মোতাবেক ঝালকাঠি জেলা পুলিশ করোনো ভাইরাস সম্পর্কে জনগনের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য মাইকিং করে করোনা ভাইরাস অত্যন্ত ছোঁয়াচে সংক্রামক হওয়ায় মানুষকে যথাসম্ভব ভীড় বা জনসমাগম এডিয়ে চলার পরামর্শ প্রদানের পাশাপাশি সঠিক নিয়মে মাস্ক ব্যবহার করা, নিয়মিত সাবান কিংবা হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত-মুখ পরিস্কার করা, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার ইত্যাদি বিষয়ে মানুষকে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ঝালকাঠি জেলা পুলিশ বিভিন্ন ধরনের সচেনতামূলক কর্মকাণ্ডসহ বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে ভূমিকা রেখে আসছে। এ ছাড়াও জনসমাগম না করে প্রচারণা চালানোর কৌশল হিসেবে মাইকিং,স্থানীয় ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পেইজ ব্যবহার করে করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে জনসাধারণকে সচেতন করছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে বাজার মনিটরিংয়ের ক্ষেত্রেও জেলা পুলিশ নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

নোবেল করোনা ভাইরাস ( কোভিড -১৯) সম্পর্কে বাংলাদেশ পুলিশ হেডকোয়াটারের পক্ষ থেকে প্রথম থেকেই আতংকিত না হয়ে সচেতন থাকতে এবং কেউ বিদেশ ফেরত হওয়া সত্ত্বেও কোয়ারেন্টাইনে না থাকলে কিংবা কারও কাছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের বিষয়ে তথ্য থাকলে পুলিশকে জানাতে কিংবা জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ ফোন করে অবহিত করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *