চিলমারীতে ভূমি দস্যু জাহেদুলের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড অব্যাহত; দিশেহারা সাংবাদিক পরিবার


কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ভূমি দস্যু অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্য জাহেদুলের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে। সাংবাদিক হুমায়ুন কবিরের মাথায় জখমসহ তার পিতার ডান হাতের কব্জির উপরের হাড় সন্ত্রাসীরা ভেঙ্গে দিয়েছে ।অপর তিন ভাইকেও কুপিয়ে রক্তাত্ত জখম করেছে। এতেও শান্ত হয়নি ভূমি দস্যুরা । আবারও আব্দুল মান্নানের ২০ শতক জমির ধান জোরপূর্বক ভূমি দস্যু , স্বেচ্ছাচারী জাহেদুলের দল কেটে নিয়ে গেছে। প্রভাবশালী একটি মহলের সহায়তায় ভূমিদস্যু জাহেদুল সাংবাদিক হুমায়ুন কবিরের পরিবারের বিরুদ্ধে প্রভাশালীর ছত্র ছায়ায় থানায় মিথ্যা মামলা দায়ের করে বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন।
জানা যায়, গত সোমবার সকালে এলাকার একজন চিহ্নিত ভূমি দস্যু সাবেক সেনা সদস্য জাহেদুল পড়শী আব্দুল মান্নানের ২০ শতক জমির ধান (জে এল নং-১৪,মৌজা মাচাবান্দা,দাগ নং -৪৯১৪) তার দলবল সহ উল্লাস করে কেটে নিয়ে যায়।জাহেদুলের অনুসারী সাজ্জাদুর রহমান রাজুর নেতৃত্বে নারী পুরুষের সংঘবদ্ধ দল সরাসরি ধান কেটে তান্ডব চালায় । এ সময় এ প্রতিনিধি সরেজমিন উপস্থিত থেকে খবর সংগ্রহকালীন ভূমি দস্যুরা তার উপর তেড়ে আসেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন গ্রামবাসী জানান, দীর্ঘ দিন ধরে একটি কুচক্রি মহলের হোতা জাহেদুল ইসলাম সাংবাদিক হুমায়ুন কবিরের পরিবারকে মিথ্যা মামলা, হামলা ও জমি দখল করে ধান কেটে নিয়ে যাওয়া সহ প্রাণনাশের অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।
প্রভাবশালী একটি মহলের প্রত্যক্ষ ইন্ধনে উক্ত ভূমি দস্যুর দল ধরাকে সড়া জ্ঞান ভেবে এলাকায় একের পর এক সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন।
এ ব্যাপরে সাংবাদিকের পিতা আব্দুল মানান জানান, ভুমি দস্যু জাহিদুল,সাজ্জাদুর রহমান রাজু গং এর সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের এবং মিথ্যা মামলা দায়েরের অপতৎপরতার হাত থেকে রক্ষার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উর্দ্বতন কর্তপক্ষের কাছে হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *