আশুলিয়ায় চেয়ারম্যানের ষড়যন্ত্রকারী হাইব্রিড নেতাদের গোমর ফাঁস 

মোঃ আকরাম হোসেন   
আশুলিয়ায় সকল মিথ্যার বেড়াজাল ছিন্ন করে।সত্যের জয় জয়াকারে চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন মাদবর।
আগামী আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শাহাব উদ্দিন মাদবরের প্রতিদ্বন্দ্বী করার মতো লোক আশুলিয়াতে মিলছে না বিধায়।কুচক্রী মহলেরা একের পর এক ভিন্ন ভিন্ন পথ অবলম্বন করে।তার জনপ্রিয়তা নষ্ট করার জন্য মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন কাহিনী উত্থাপন করছেন।

জামাত-শিবিরের একাধিক মামলার আসামি 2013 সালের সরকারবিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্বদানকারী।মাদকাসক্ত ব্যক্তি দিয়ে নিজেদের শেখানো কথা ভিডিও ধারনা করে। চেয়ারম্যান শাহাবউদ্দিনের সম্মান নষ্ট করতে গিয়ে নিজেরাই কুপোকাত।
        
সাভার-আশুলিয়ার গণমাধ্যমকর্মীদের তীক্ষ্ণ তদন্ত পর্যবেক্ষণে চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ।সম্পূর্ন মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন বলে জানা যায়।ভিডিও ফুটেজে বক্তব্য দানকারী শাওনের স্ত্রীর বক্তব্যে বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য।শাওন মাদকাসক্ত চরিত্রহীন সরকারবিরোধী আন্দোলনের হোতা।শাওনের স্ত্রী ও এলাকার শিশু থেকে বৃদ্ধারাও বলেন।একাধিক নাশকতা মামলা নিয়ে জেলের ঘানি টেনেছেন মদ্য মাতাল শাওন।

শাওনের মদদ দাঁতারা যুবদল থেকে উঠে এসে রুপ পাল্টিয়ে যুবলীগের পরিচয়দানকারী।নব্য হাইব্রিড আওয়ামী লীগাররা।মদ্য মাতালদেরকে দিয়ে দেশের উন্নয়নে বাধা প্রদান ও দলীয় ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য।চেয়ারম্যান সাহাবউদ্দিন মাদবরের মত ব্যক্তির গাঁয়ে নোংরা কাঁদা ধুলা লাগানোর আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন 

১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সোনার বাংলায় লাল-সবুজের পতাকার জন্য।আশুলিয়া ইউনিয়ন থেকে যারা যুদ্ধ করেছিলেন।সকল মুক্তিযোদ্ধারা এবং আশুলিয়া ইউনিয়নের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ।চেয়ারম্যান শাহাবউদ্দিনের আচার-আচরণ ইউনিয়ন পরিচালনার বিষয়ে লাখো-কোটি সন্তুষ্টিপ্রকাশ করছেন।

আওয়ামী দল থেকে বহিষ্কৃত।নব্য আওয়ামী লীগার হাইব্রিড নেতাদের ষড়যন্ত্রের হাত থেকে দলকে বাঁচাতে।সম্মানীয় ব্যক্তির সম্মানহানি ও হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য।দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিশেষ প্রয়োজন।সেজন্য   সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্বোতন নেত্রীবৃন্দ ও প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *