কচাকাটায়  সরকারি বিধি নিষেধ অমান্য করে ঈদ আনন্দ উৎযাপন 

শেয়ার করুন

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: 

করোনা সংক্রোমন ঠেকাতে দ্বিতীয় দফা (২৩ জুলাই) শুক্রবার থেকে দেশব্যাপী কঠোর লকডাউন চলমান রয়েছে। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে সরকারের বিধি নিষেধ তোয়াক্কা না করেই স্থানীয় ঈদ আনন্দ উৎসবে পুরস্কার বিতরণ খোদ ইউপি চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার কচাকাটা থানার কেদার ইউনিয়নের গোলের হাট সরদারটারী গ্রামে ঈদ আনন্দ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত শনিবার (২৪ জুলাই) বিকাল তিনটা থেকে সন্ধা পর্যন্ত ভূরুঙ্গামারী-মাদারগঞ্জ সড়কের পাশে বাড়ির উঠানে এই আনন্দ মেলার আয়োজন করে স্থানীয়রা। 

এই আনন্দ আয়োজন দেখতে আশে পাশের কয়েকটি গ্রামের শত-শত নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোরসহ পথচারীদের ভীর জমে যায়। জনসমাগমে গাদাগাদি করে দর্শকদের এসব আয়োজন উপভোগ করতে দেখা যায়। ছিল না কোন স্বাস্থ্য বিধি মানার প্রবণতা। আয়োজনে রশি টানা, যুবকদের টায়ার টানা, চোখ বেধে হাড়ি ভাঙ্গাসহ গ্রামীণ বেশ কয়েক প্রকার খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলা এই খেলা শেষে ঘটা করে ইউপি চেয়ারম্যান জয়ীদের পুরুস্কার প্রদান করেন। 

আয়োজকদের একজন এনামূল হক বলেন, এই সময়ে এরকম আয়োজন করাটা ভুল হয়েছে। তবে আমি আয়োজনে ছিলাম না। গ্রামের উঠতি বয়সি কিছু যুবক এটা করেছে। পরে আমি এই আয়োজন দ্রুত শেষ করতে বলি। 

কেদার ইউনিয়ন পরিষদের ( ইউপি) চেয়ারম্যান মাহাবুবুর রহমান বলেন, আয়োজনটির বিষয়ে আগে থেকে জানতাম না এবং আমি অতিথিও ছিলাম না। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে খেলাধুলা সহ সব আয়োজন বন্ধ করে দেই।

কচাকাটা থানার পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুব আলম বলেন, ঈদ আনন্দ উৎসব সম্পর্কে কেউ আমাকে অবগত করেনি। বিষয়টি সম্পর্কে জানলে ব্যবস্থা গ্রহণ করতাম।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূর আহমেদ মাছুম বলেন, এ সম্পর্কে জানা ছিলো না। বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে। কর্তৃপক্ষক যে সিদ্ধান্ত দিবেন সেটা বাস্তবায়ন করা হবে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *