ইশরাত জাহান চৌধুরী, মৌলভীবাজার ::
মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ জনপদ শমশেরনগরে তরুণনদের নিয়ে গঠিত “ক্লিন এন্ড বিউটিফুল শমশেরনগর” সংগঠনটি এলাকাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করে। পরিচ্ছন্নতা অভিযানে যোগ দিয়ে শমশেরনগরে তরুণদের নিয়ে রাতে তিন ঘন্টায় শমশেরনগরকে ময়লা আবর্জনামুক্ত করেন বিশিষ্ট জিন বিজ্ঞানী ড: আবেদ চৌধুরী। রাত নয়টায় শমশেরনগর এ এ টি এম উচ্চ বিদ্যালয়ে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনাসভা শেষে পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু হয়। ক্লিন এন্ড বিউটিফুল শমশেরনগরের সাধারন সম্পাদক শামছুল হক (মিন্টু)-এর সভাপতিত্বে পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক আলোচনা সভা ও অভিযানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট জিন বিজ্ঞানী ড: আবেদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক ও সংস্কৃতিকর্মী মেহেদী মাসুদ, শমশেরনগর বণিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি আব্দুল মালিক (বাবুল), সাধারন সম্পাদক এম এ আউয়াল (উজ্জল), ক্লিন এন্ড বিউটিফুল শমশেরনগরের সহ-সম্পাদক সৈয়দ ইশতিয়াক উদ্দীন (বাবেল) প্রমুখ। আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, শিক্ষা সংস্কৃতি, ক্রীড়া, রাজনীতি, সামাজিকতায় শমশেরনগরের সুনাম রয়েছে। শুধুমাত্র রাস্তার ময়লা আবর্জনায় শমশেরনগর নিয়ে কেন খারাপ কথা শুনতে হবে। তাই তরুণরা সাথে থাকলে ”ক্লিন এন্ড বিউটিফুল শমশেরনগরের ব্যানারে নিয়মিত এসব ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করে শমশেরনগরকে ঝরঝড়া করা যাবে। তাই প্রতিদিন নির্ধারিত লোকজন ময়লা আবর্জনা পরিস্কতার করলেও সংগঠনের উদ্যোগে মাসের একটি তারিখে রাতে সবার অংশ গ্রহনে উৎসাহ উদ্দীপনায় পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করা যায়। তার অংশ হিসাবে সোমবার রাতে এ আয়োজনা করা হয়েছে। আর এ আয়োজনে তরুণদের সাথে রয়েছেন, গুণিজন, শিক্ষক, ব্যবসায়ীসহ নানা পেশার মানুষ। বিশিষ্ট জিন বিজ্ঞানী ড: আবেদ চৌধুরী বলেন, প্রথমবার শমশেরনগরের তরুণরা এত সংগঠিত ছিল না। তারপরও তিনি ডাক দেওয়ার পর তারা ২০১৩ সালের ১ জানুয়ারী পরিচ্ছন্নতা অভিযানে যোগ দিয়েছিল। আজ কারা মহা-পরিদর্শকের সু-পরামর্শে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাধ্যমে পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালিত হচ্ছে দেখে খুবই ভাল লাগছে। তাই তিনি শমশেরনগরের তরুণদের সাথে হাত মিলিয়ে কাজ করেছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।