ষ্টাফ রিপোর্টারঃ
কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারীতে নির্বাচনী আইন ভঙ্গ করে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর রাত ১১ টায় মাইক দিয়ে জনসভা । পুলিশকে জানানোর পরেও নেয়া হয়নি কোন ব্যবস্থা।
জানাগেছে,উপজেলার পাইকেরছড়া ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ লুৎফর রহমান গত ২৯ মার্চ নির্বাচনী আইন ভঙ্গ করে মাওলানা পাড়ায় রাত ১১ টার সময় মাইক দিয়ে জনসভা করার সময় ভুরুঙ্গামারী থানা পুলিশকে বিষয়টি জানানোর পরেও প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোন আইনত ব্যবস্থা গ্রহন না করায় অন্যান্য দলীয় প্রার্থীরা প্রশাসনের বিমাতা সুলভ আচরনে হতাশা গ্রস্থ। উল্লেখ্য থানা পুলিশ ইতিপুর্বে তিলাই ইউনিয়নের ধামেরহাট বাজারে জাতীয় পার্টির মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী সাগর আলী মাষ্টারের জনসভা রাত ৮ টার পর নির্বাচনী আইনে নিষিদ্ধ বলে সভা ভেঙ্গে দেয়। পরে ঐ রাতেই একই স্থানে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল হোসেন মন্ডল রাত ১২ টা পর্যন্ত জনসভা করার সময় অন্যান্য দলের পক্ষ থেকে নির্বাচন অফিস ও থানায় অভিযোগ করলেও তারা কোন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ পায়নি এছাড়া বলদিয়া ইউনিয়নেও বিএনপির মনোনীত প্রার্থী মোখলেছুর রহমানকে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা মিথ্যা মামলা সহ পথ সভা করতে বাঁধা ও ধাওয়া করলেও প্রশাসনের ভুমিকা ছিলনা। নির্বাচনী আইন সকলের জন্য সমান হলেও ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় বিমাতা সুলভ আচরন প্রশাসনের ভুমিকাকে প্রশ্নবিত্ত করছে। উল্লেখ্য প্রশাসনের এরুপ ভুমিকায় অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন হবে কিনা সন্দেহ পোষন করছে সাধারণ ভোটাররা । রাতে থানা ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা জিয়া লতিফুল ইসলামকে জনসভার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান রাত ১২ টার পর থেকে নিষিদ্ধ হবে আর আপনাদের যা লেখার লেখতে পারেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।