ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি॥
নির্বাচনের আর মাত্র ৫ দিন। প্রাথীৃরা ভোটরদেও বাড়ি বাড়ি ঘুরে নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়ে আসছেন। ঠাকুরাগাঁও সদর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদে বিএনপির দুই নেতা চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন।কিন্তু কেউ ধানের শীষ প্রতীক পাননি। এতে দ্বিধায় পড়েছেন দলটির কর্মী সমর্থকেরা।
দলীয় সুত্রে জানা গেছে,উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক এই ৫ জনকে ইউনিয়ন থেকে একজন করে চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম সুপারিশ করে কেন্দ্রে পাঠাতে বলা হয়। এই নির্দেশনা মেনে জেলার ৫৩ টি ইউনিয়নে বিএনপি দলীয় প্রার্থী বাছাই করে। পঞ্চম ধাপে সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের ৮ টিতে প্রার্থী বাছাই করে কেন্দ্রে পাঠানো হয়। বিভক্তির কারণে বালিয়া ইউনিয়নে কারও নাম পাঠায় নি কমিটি। এ ৯ টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে ২৮ মে।

বালিয়া ইউনিয়নের বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস আলী বলেন বাছাই কমিটির সভায় বিএনপির প্রতিনিধিরা চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ওয়ার্ড কমিটির সদস্য জুলফিকার আলী ভুট্টোর পক্ষে মত দেন। কিন্তু সদর উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আফাজ উদ্দিন ভুইয়াও মনোনয়ন চান। শুধু তাই নয়,২ প্রার্থীই কেউ কাউকে ছাড় নিতে নারাজ ও তাদেও নিজ নিজ সিদ্ধানেত অনঢ থাকেন এবং প্রয়োজনে স্বতন্ত্র প্রাথীৃ হিসেবে নির্বাচন করবেন বলে ঘোষনা দেন।
যথারীতি চেয়ারম্যান প্রার্থী ভুট্টো ও আফাজ উদ্দিন দুই জনই সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দেন। স্থার্নীয় বিএনপির সমর্থক হাফিজ উদ্দিন মন্তব্য করে বলেন, দুই জনকে খুশি রাখতে দলীয় প্রতীক ধানের শীষ দেয়নি বিএনপি।
আফাজ উদ্দিন ভুইয়া বলেন, ভোটারা আমার সঙ্গেই আছেন। জয়ী হয়ে প্রমান করতে চাই আমার হাতে ধানের শীষ তুলে না দেয়ার সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। অন্যদিকে জুলফিকার আলী ভুট্টো বলেন ,গত নির্বাচনে অল্প ভোটে তিনি পরাজিত হয়েছিলেন। ইউনিয়নের নেতা কর্মীদের চাপে তিনি প্রার্থী হয়েছেন এবং প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।