আকতার হোসেন ভুইয়া,নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) সংবাদদাতা ॥
নাসিরনগর উপজেলার উচ্চবিদ্যাপিঠ নাসিরনগর ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়কে জাতীয় করণের লক্ষে শিক্ষা মন্ত্রণালয প্রজ্ঞাপন জারি করার খবরে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ কলেজটি জাতীয়করণের লক্ষ্যে নিয়োগ স্থগিত রাখা ও পরিদর্শন সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেন। গত ২৮ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কলেজটি জাতীয় করণের জন্য চূড়ান্ত অনুমোদন দেন। এ খবর জানতে পেরে আনন্দে মেতে উঠেন কলেজটির শিক্ষক-কর্মচারীসহ উপজেলাবাসী। একই সঙ্গে তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারি কলেজবিহীন উপজেলায় একটি করে কলেজ সরকারি করার ঘোষণা দীর্ঘ দিন ধরে দিয়ে আসছেন। সেই লক্ষ্যে তার নির্দেশে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে গঠিত একটি কমিটি বেশ কয়েক মাস ধরে কাজ করে নাসিরনগর ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়সহ ১৯৯ উপজেলার ১৯৯টি কলেজের তালিকা প্রস্তত করেন। যাচাই-বাছাই শেষে গত ২৮ জুন ওই তালিকার ওই ১৯৯টি কলেজ জাতীয়করণের জন্য প্রধানমন্ত্রী চুড়ান্ত অনুমোদন দেন। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদিত তালিকাটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে গেলে মন্ত্রণালয় ওইসব কলেজে নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা আরোপসহ পরিদর্শন সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেন। এ তালিকার ৫৭ নম্বর ক্রমিকে নাসিরনগর ডিগ্রি মহাবিদ্যালয় রয়েছে-এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে উপজেলার সর্বত্র উৎসবের আমেজ বইতে শুরু করে। আনন্দে ফেটে পড়েন এ কলেজের শিক্ষক-কর্মচারী, শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। একই সঙ্গে তারা জাতীয়করণের জন্য মনোনীত কলেজ হিসেবে উপজেলার একমাত্র কলেজ হিসেবে নাসিরনগর ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়কে চুড়ানÍ অনুমোদন দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কলেজটি জাতীয় করণে সহযোগিতাকারী শিক্ষমন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ও মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রী এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপি প্রতি।

অধ্যক্ষ মো: আলমগীর বলেন, ‘এ কলেজটিকে জাতীয়করণের জন্য চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়ায় কলেজের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী ও মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রী এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপিকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।’ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা, শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন নাসিরনগর ডিগ্রি মহাবিদ্যালয় শিক্ষক ও কর্মচারীবৃন্দ। পাশাপাশি শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ও মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রী এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপিকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।’ শিক্ষকরা তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় পবিত্র রমজান মাসের শেষের দিকে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসবকে সামনে রেখে চাকরীজীবনের সবচেয়ে বড় উপহারটুকু দেয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।