ফুলবাড়ীতে বিপন্ন প্রজাতির শকুন উদ্ধার

শেয়ার করুন

কুড়িগ্রামপ্রতিনিধি
ফুলবাড়ীতে বিলুপ্ত প্রায় প্রজাতির একটি শকুন উদ্ধার করেছেন করেছে বন বিভাগ। উদ্ধারকৃত শকুনটি অসুস্থ থাকায় অবমুক্ত না করে সোমবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় কুড়িগ্রাম জেলা বন বিভাগে পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ফুলবাড়ী উপজেলা বন কর্মকর্তা নবীর উদ্দিন।

জানা গেছে, সোমবার সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের চন্দ্রখানা এলাকার আমতলা বাজার সংলগ্ন মাঠ থেকে ধান শুকানো জালে আটকে পড়ে শকুনটি। পরে সেখান থেকে শকুনটি আহম্মদ আলী নামে এক ব্যক্তি উদ্ধার করে কুটিচন্দ্রখানা এলাকার নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে। মুহুর্তের মধ্যে এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শকুনটিকে এক নজর দেখার জন্য শিশু-কিশোরসহ বিভিন্ন বয়সের মানুষ সেখানে ভিড় জমান। পরে খবর পেয়ে উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা বিলুপ্ত প্রায় প্রজাতির শকুনটি উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম বন বিভাগে প্রেরণ করে।

ওই এলাকার আব্দুল আজিজ মজনু জানান, ১৫ থেকে ২০ বছর আগে এলাকায় শকুনের দেখা যেত। এখন আর আগের মতো দেখা পাওয়া যায় না। আজ অনেক বছর পর শকুনটি দেখলাম। বলতে গেলে প্রায় বিলুপ্ত এই শকুন।

এ প্রসঙ্গে ফুলবাড়ী উপজেলা বন মো. কর্মকর্তা নবীর উদ্দিন জানান, সংবাদ পেয়ে শকুননটি উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম বন বিভাগে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, ভারত থেকে শকুনটি এসেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। তবে এটি বিলুপ্ত প্রায় প্রজাতির শকুন। দিনাজপুর বন বিভাগের উদ্যোগে অসুস্থ শকুনগুলোকে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করা হচ্ছে।

কুড়িগ্রাম জেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা মমিনুল ইসলাম জানান, ভারত সীমান্তঘেষা ফুলবাড়ী উপজেলা থেকে শকুনটি উদ্ধার করা হয়েছে। এখন শকুনটি সুস্থ আছে এবং আমাদের হেফাজতে আছে। মঙ্গলবার সকালে দিনাজপুর জেলার সিংরায় অবমুক্ত করা হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।