ভুরুঙ্গামারীর শিংঝাড়ে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে, বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ

ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীর জয়মনিরহাট ইউনিয়নের শিংঝাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতা হানির অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল ) অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের অপসারণ ও বিচারের দাবিতে বিদ্যালয় মাঠে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ওই বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী। এর আগে গত ৪ এপ্রিল (সোমবার) অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান এর দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি ও অপসারণের দাবিতে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন এলাকাবাসী।
প্রাপ্ত অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, গত ২৭ মার্চ সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ২০২১ সালে প্রাথমিক সমাপনি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বর্তমানে ষষ্ঠ শ্রেণিতে অধ্যায়নরত জনৈক ছাত্রী প্রত্যায়ন পত্র নিতে আসে। প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান মেয়েটিকে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে জড়িয়ে ধরে শরীরের স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দিয়ে শ্লীলতা হানি ঘটায়। পরে মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে প্রধান শিক্ষকের রুম থেকে বেড়িয়ে দৌড়ে বাড়িতে গিয়ে তার মাকে ঘটনা খুলে বলে। পরে ওই ছাত্রীর মা প্রধান শিক্ষকের কাছে ঘটনা জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক তাকে ধমক দিয়ে তাড়িয়ে দেন। পরের দিন ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা এলাকাবাসী ও সভাপতির নিকট বিচার দাবী করেন। অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক প্রভাবশালী ও সভাপতির আপন চাচাতো ভাই হওয়ায় ওই ছাত্রীর বাবা মাকে ম্যানেজ করে ঘটনার ধামাচাপা দেয়। এর প্রতিবাদে এলাকাবাসী ও অভিভাবকরা তাদের কন্যা শিশুকে বিদ্যালয়ে পাঠানো বন্ধ করে দেয়। ফলে মেয়ে শিক্ষার্থী শূন্য হয়ে পড়ে শিংঝাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
পরে গত সোমবার নিজেদের সন্তানের নিরাপদ লেখা পড়ার পরিবেশ নিশ্চিত করণ, অভিযুক্ত শিক্ষকের অপসারণ ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবীতে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন এলাকাবাসী।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি চক্রান্তের শিকার।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জ্যোতির্ময় চন্দ্র সরকার এর মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। পরে সহকারি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জাকির হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তাকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আজ(মঙ্গলবার) তিনি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। আজ কালের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথাও জানান তিনি।
ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, এ বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.