নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ১৬ ডিসেম্বর-২০২৩ ‘মহান বিজয় দিবস’ পালন করা হয়েছে। মহান বিজয় দিবসের প্রথম প্রহর ১২.০১ মিনিটে রাজশাহী নিউ গভঃ ডিগ্রী কলেজে অবস্থিত শহিদ বেদিতে মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহিদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদনের উদ্দেশ্যে
পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে কার্যক্রমের সূচনা করা হয়। সকাল ১০.০০ টায় রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মোৎসর্গকারী মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে ০১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
সকাল ১০.১৫ টায় শিক্ষা বোর্ড কলেজ পরিদর্শক মো. এনামুল হক এঁর সভাপতিত্বে
মহান বিজয় দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিধি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন
রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মো. অলীউল আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সচিব জনাব মো. হুমায়ূন কবীর, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মো. আরিফুল ইসলাম, বিদ্যালয় পরিদর্শক মহা. জিয়াউল হক, উপ-পরিচালক(হিসাব ও নিরীক্ষা) জনাব মো. বাদশা হোসেন, সিনিয়র সিস্টেম এনালিষ্ট মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম এবং আন্তঃশিক্ষা বোর্ডে কর্মচারী ফেডারেশনের মহাসচিব ও রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোহা. হুমায়ন কবীর। সভায়
বক্তব্য রাখেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সহকারী বিদ্যালয় পরিদর্শক মো. আবু দারদা খান, সিনিয়র সিস্টেম এনালিষ্ট মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের প্রধান মূল্যায়ন অফিসার (চলতি দায়িত্ব) এস.এম. গোলাম আজম। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মো. অলীউল আলম তাঁর বক্তব্যে বলেন- “এই দিনটি আমাদের জন্য গর্বের, গৌরবের, আনন্দের ও প্রাপ্তির। তিনি দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীদের শক্ত হাতে প্রতিহত করে অর্জিত বিজয় সুনিশ্চিত করার আহবান জানান। তিনি বলেন এই বিজয়কে ধরে রাখার জন্য আমাদের স্ব স্ব কর্মস্থলে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করে যেতে হবে এবং দেশকে ভালোবাসতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু
শেখ মুজিবুর রহমান এঁর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলো হাতে দাঁড়িয়ে আছেন, আমরা তাঁর সহযাত্রী হয়ে আমাদের প্রিয় বাংলাদেশকে স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাবো। তিনি মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল শহিদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।” আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। পরে বাদ আসর শিক্ষা বোর্ড জামে মসজিদে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং আত্মদানকারী সকল শহিদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন