রাজীবপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামের রাজবপুরে ৪র্থ শ্রেণির এক শিশুকে ধর্ষণ করার ঘটনা ঘটেছে। আলম মিয়া নামের (২৭) লম্পট শিশুটিকে ধর্ষণ করে। এসময় শিশুটির গাল ও বুকে কামড়িয়ে ক্ষতবিক্ষত করে দিয়েছে। আহত শিশুটিকে প্রথমে রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে জামালপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। শনিবার রাতে উপজেলার বালিয়ামারী সীমান্ত এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে।
রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পপ (পরিবার পরিকল্পনা) কর্মকতা ডা. দেলোয়ার হোসেন জানান, প্রাথমিক চিকিৎসা ও তদন্তে শিশুটির ওপর যে পাশবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে তার আলামত পাওয়া গেছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই শিশুটিকে জামালপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আমি বিষয়টি থানা পুলিশকে জানানোর কথাও বলেছি। বালিয়ামারী আদর্শ গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মদ কন্যা বলে জানা গেছে। ধর্ষক আলম মিয়ার বাড়িও ওই একই গ্রামে।
শিশুটির স্বজন জাহাঙ্গীর আলম জানান, শিশুটি জামালপুরে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার বাবা বেচে নেই। তারা খুবই গরীব। চিকিৎসা শেষে থানায় অভিযোগ দেয়া হবে।
শনিবার রাজীবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পৃথীশ কুমার সরকার জানান, ওই ধরণের ঘটনার কোনো অভিযোগ কেউ দেয়নি। তারপরও বিষয়টি খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।