র‌্যাবের পৃথক পৃথক অভিযানে ২ জন ধর্ষক গ্রেফতার ও পরিত্যাক্ত ২টি এয়ারগান উদ্ধার

শেয়ার করুন

ফারহানা আক্তার, জয়পুরহাটঃ
জয়পুরহাট র‌্যাব কর্তৃক পৃথক পৃথক অভিযান পরিচালনা করে জয়পুরহাট সদর থানায় দায়েরকৃত ধর্ষন মামলার এজাহার নামীয় ২ জন জন ধর্ষককে জেলা সদরের বাটারমোড় এলাকা থেকে গ্রেফতার এবং দোগাছী ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামের জনৈক শ্রী দীনেশ চন্দ্র বর্মন এর বসতবাড়ীর পাশ থেকে পরিত্যাক্ত ২টি এয়ারগান উদ্ধার করা হয়েছে।
জোর করে বাড়ীতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগে ভূক্তভোগী এক নারী গত ১১ জানুয়ারি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী ২০০৩) এর ৯(১)/৩০ মূলে একটি মামলা দায়ের করে। সেই মূলে র‍্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার তৌকির এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি চৌকস অপারেশনাল দল বুধবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে জয়পুরহাট সদর থানাধীন আদর্শপাড়া এলাকার মৃত দুলাল হোসেনের ছেলে ১ নং আসামী মোঃ রব্বানী (২২), ও শেমপুর এলাকার মতিয়ার হোসেনের ছেলে ২ নং আসামী মোঃ মমিন (২০) গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জয়পুরহাট জেলার সদর থানায় জিডি মূলে হস্তান্তর করা হয়েছে।

অপরদিকে জয়পুরহাট জেলার সদর থানাধীন দোগাছী ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামের জনৈক শ্রী দীনেশ চন্দ্র বর্মন এর বসতবাড়ীর দক্ষিণ পার্শের ফাঁকা জায়গা থেকে বিকাল ৩ টায় আরেকটি পৃথক অভিযানে জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের একটি চৌকস অপারেশনাল দল কোম্পানী অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার তৌকির এবং অতিঃপুলিশ সুপার জাহিদ এর নেতৃত্বে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ২ টি অস্ত্র (এয়ারগান) ও ৪০ রাউন্ড গোলাবারুদ উদ্ধার করে।

পরিত্যাক্ত অস্ত্রগুলো দিয়ে একটি চক্র শীত মৌসুমে অতিথি পাখি শিকার করার কাজে ব্যবহার করতো। র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে চক্রটি অস্ত্রগুলো ফেলে পালিয়ে গেলে পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় এবং আলামতগুলোর যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জয়পুরহাট জেলার সদর থানায় জিডি মূলে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।