লালমনিরহাটে কাজের মজুরী না পেয়ে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে তালা দিলেন শ্রমিকরা

এস.বি-সুজন, লালমনিরহাট প্রতিনিধি :

লালমনিরহাটের মহেন্দ্রনগরে ৪০ দিনের মজুরী না পেয়ে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করছেন ইজিপিপি প্রকল্পের হতদরিদ্র শ্রমিকরা। মঙ্গলবার (০৫ এপ্রিল) দুপুরে লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করেন হতদরিদ্র শ্রমিকরা।

জানা গেছে, হাতে কাজ না থাকায় বেকার হয়ে পড়া অতিদরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্যভাব দেখা দেয়। তাই অতিদরিদ্র কর্মক্ষম বেকার মানুষদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ইজিপিপি প্রকল্প চালু করে সরকার। এ প্রকল্পের মাধ্যমে অতিদরিদ্র পরিবারের কর্মক্ষম ব্যাক্তিদের তালিকা তৈরী করে।

একই সাথে সংশ্লিষ্ট এলাকার গ্রামীন অবকাঠামো উন্নয়নে মাটি ভরাটের প্রকল্প গ্রহন করে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়। সাধারন শ্রমিকরা দৈনিক চারশত এবং দলনেতা ৪৫০ টাকা মজুরীতে নির্ধারীত প্রকল্পে মাটি ভরাটের কাজ করবেন। শ্রমিক নির্বাচনে শতকর ৩৩জন নারী শ্রমিক নেয়া হয়।

সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নে ৯টি দলে ২৯৫জন শ্রমিক গত ১২ ফেব্রুয়ারী এ প্রকল্পের কাজ শুরু করেন। প্রকল্পের মেয়াদ ৪০ দিন হলেও মাঝে অহেতুক ৬দিন বন্ধ রাখা হয়। ফলে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলেও সাধারন শ্রমিকরা ৩৪ দিন কাজের সুযোগ পান। সেই অনুপাতে ৪০ দিনের স্থলে তারা ৩৪ দিনের মজুরী প্রাপ্য হবেন।

কিন্তু প্রতি সপ্তাহে মজুরী পরিশোধ করার কথা থাকলেও এ বছর এ প্রকল্পের মজুরী রকেট এর মাধ্যমে পরিশোধের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। কিন্তু রকেট রেজিস্টার তৈরীর জঠিলতায় প্রায় দুই মাসেও মেলেনি মজুরী। ফলে নিদারুন খাদ্য কষ্টে পড়েছেন ইজিপিপি’র সাধারন শ্রমিকরা।

তাই দ্রুত তাদের পাওনা মজুরী পরিশোধের দাবিতে মঙ্গলবার(৫ এপ্রিল) সকালে মহেন্দ্রনগর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সচিব ও চেয়ারম্যানের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করেন সাধারন শ্রমিকরা। শ্রমিকদের বিক্ষোভ থামাতে এসে শ্রমিকদের তোপের মুখে ইউপি কার্যালয় ত্যাগ করেন মহেন্দ্রনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ মন্ডল।

শ্রমিক আমিনুর রহমান বলেন, হামরা গরিব মানুষ। দিন করি দিন খাই। ৩৪ দিন সরকারী মাটি কাটার কাজ করেছি। একটি টাকাও মজুরী পাইনি। হাওলাদ আর বাকী খেয়ে দিন শেষ। এখন রমজান মাস দোকানদাররা বাকীও দেয় না। না খেয়ে যদি মরতে হয় তো কাউন্সিলে (ইউপি কার্যালয়ে) মরবো।

শ্রমিক মর্জিনা বেগম বলেন, অসুস্থ্য স্বামীর চিকিৎসা আর ৫ সদস্যের সংসার চলে আমার দৈনিক আয়ে। সরকারী মাটি কাটার কাজ করে দুই মাসেও একটি টাকাও মজুরী পাইনি। হাওলাত আর বাকীতে চলছে। সোমবার চাল ভাজা খেয়ে ইফতারী করেছি। আজ সেহরি খাইছি পাশের বাড়ির হাওলাতি পৌনে এক কেজি(৭৫০ গ্রাম) চালের ভাত আর আলু ভর্তা। হামরা ত্রাণ চাই না, হামার পাওনা টাকা চাই।
মহেন্দ্রনগর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সুশিল চন্দ্র বলেন, এ ইউনিয়নে ২৯৫জন শ্রমিক ইজিপিপি প্রকল্পে কাজ করেছেন।

কিন্তু অনলাইন জঠিলতায় তাদের মজুরী দেয়া সম্ভব হয়নি। বিষয়টি নিয়ে উপজেলায় বারংবার যোগাযোগ করা হলেও প্রতিকার মেলেনি। আজ শ্রমিকরা আমার কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়ায় সরকারী কাজ কর্ম করতে পারছি না।

মহেন্দ্রনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ মন্ডল বলেন, সরকারী সিদ্ধান্তের কারনে শ্রমিকরা ৬দিন কাজের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের ধিরগতির কারনে দীর্ঘ দিনেও শ্রমিকরা মজুরী পাচ্ছেন না। আমার অফিসে তালা লাগানোর বিষয়টি ঊর্দ্ধতন মহলকে জানানো হবে।

এবিষয়ে লালমনিরহাট সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মশিউর রহমানের সাথে মুডোফোনে কথা বলার চেষ্টা করলে তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.