mail.google

ইশরাত জাহান চৌধুরী, মৌলভীবাজার :: মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার রহিমপুর ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামের দরিদ্র কৃষি মজুর জুবেল মিয়া ও গৃহিনী তাছলিমা বেগমের একমাত্র শিশু সন্তান তামিম আহমদ (৫)।
ধর্মীয় লাইনে পড়ানোর আগ্রহে একমাত্র ছেলেকে গ্রামের উমাতুল মুমেনিন মাদ্রাসায় ভর্তি করেছিলেন। তার বয়স দুই বছর হতেই ধরা পড়ে শিশু তামিমের হুদপিন্ডে ছিদ্র রয়েছে। সে জন্য গত তিন বছর ধরে সে নানা উপসর্গে ভোগছে। বাবা দরিদ্র কৃষি মজুর হওয়ায় প্রতিবেমীদের কাছ থেকে ধার দেনা করে আর্তিক সাহায্য নিয়ে তাকে (তামিমকে) দেখিয়েছিলেন হৃদরোগ ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা: মোয়াজ্জেম হোসেন চৌধুরীকে। এর পর ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কার্ডিওভাসকুলার ডিজিসি(এনআইসিভিডি)-র অ্যাসোসিয়েট অধ্যাপক ডা: মো: খালেকুজ্জামানের অধীনে শিশুটি চিকিৎসাধীন আছে। চিকিৎসক জানিয়েছেন শিশু তামিমের দ্রুত অপারেশন প্রয়োজন। এ অপারেশনে ব্যয় হবে কমপেক্ষ সাড়ে তিন লাখ টাকা। একজন দরিদ্র কৃষি মজুর জুবেল মিয়ার পক্ষে এত টাকা দিয়ে একমাত্র শিশু সন্তানের অপারেশন করানো আদৌ সম্ভব নয়। তাই শিশু তামিমের চিকিৎসায় এখন আর্থিক সাহায্যের প্রয়োজন। অসুস্থ শিশু তামিমের সাথে যোগাযোগে তার বাবা জুবেল মিয়ার মুঠোফোনে ০১৭৭৮৫৩৩৯৮২ কথা বলা যাবে। আর্থিক সহায়তা প্রদানে সোনালী ব্যাংক মুন্সীবাজার শাখার সঞ্চয়ী হিসাব ৫৮৪৪ নম্বর ব্যবহার করা যাবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।