Kurigram Sitmohol Traveling photo-(1) 29.11.15
ডাঃ আব্দুল জলিল সরকারঃ
গতকাল রোববার তৃতীয় ও শেষ দফায় ভারত গেলেন কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার অভ্যন্তরের বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ার ছড়ার ৫ টি পরিবারের ১৬ জন বাসিন্দা। জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার বাগভান্ডার সীমান্তের অস্থায়ী চেক পয়েন্ট দিয়ে দু’দেশের ইমিগ্রেশনের মাধ্যমে ট্রাভেল পাশ পরীক্ষা-নিরিক্ষার পর বিকেল ৪ টায় ভারতে প্রবেশ করেন তারা। ভারতের নতুন নাগরিকদের ফুল দিয়ে বরন করে নেন ভারতের কুচবিহার জেলার এডিএম আইশা রানী ও  বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনে কর্মরত শৈলেন্দ্র কিশোর।
জন্ম-ভুমি ও আত্মীয় স্বজনের মায়া ত্যাগ করে ভারতে গেলেন ফুলবাড়ী উপজেলার বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ার ছড়ার ৫ পরিবারের ১৬ জন বাসিন্দা। দুপুর ১২ টায় দাসিয়ার ছড়া থেকে দুইটি মাইক্রোবাস ও ৪ টি পিকআপ ভ্যান যোগে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রসহ বাগভান্ডার চেক পয়েন্টে পৌছান তারা। এর আগে ১৯ নভেম্বর ৭২ জন ও ২৪ নভেম্বর ১৫৭ জন ভারতে যান। স্বজনদের টানে ভারতে যেতে পেরে কেউ কেউ খুশি হলেও অনেকেই বসতভিটা ও আত্মীয় স্বজনের মায়া ত্যাগ করে পরদেশী হওয়ায় বিমুর্ষ হয়ে পড়েন।
ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছির উদ্দিন মাহমুদ জানান শেষ দফায় দাসিয়ার ছড়া ছিটের ১৬ জন বাসিন্দাসহ ৩ দফায় কুড়িগ্রামের অভ্যন্তরের বিলুপ্ত ছিটমহল গুলো থেকে সর্বমোট ২৪৫ জন ভারতে গেলেন।
৬৮ বছরের বঞ্চনার গ্লানি থেকে মুক্তি পাওয়ার পর ভারতের নাগরিকত্ব পাওয়া এসব বাসিন্দাদের নতুন জীবন যেন সুখের হয় এমন প্রত্যাশা সবার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।