mail.google

এইচ.এম ইমরান, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) থেকে:
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার আড়–য়াকান্দি গ্রামে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে সাইফুল ইসলাম মামুন (২২) নামে এক শিবির নেতা নিহত হয়েছে।
মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে এ বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে। তিনি ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার পুটিমারী গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে।
নিহত সাইফুল ইসলাম মামুন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আর,বি বিভাগের মাষ্টার্স শেষ বর্ষের ছাত্র। একই সঙ্গে তিনি ইসলামী ছাত্র শিবিরের শৈলকুপার ভাটই এলাকার সেক্রেটারি ছিলেন বলে জানা গেছে।
ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, রাতে ঝিনাইদহ-মাগুরা মহাসড়কের আড়–য়াকান্দি নামকস্থানে টহল দিচ্ছিল পুলিশ। এসময় শিবিরের নেতা-কর্মীরা পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে বোমা ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালালে সাইফুল ইসলাম মামুন নামের এক শিবির নেতা নিহত হয়। আহত হয় দুই পুলিশ সদস্য। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি শাটারগান, পাঁচটি হাতবোমা, গুলি, হাসুয়া ও রামদা উদ্ধার করেছে। নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।
নিহতের বাবা লুৎফর রহমান জানান, গত ১ জুলাই ঝিনাইদহ শহরের পবহাটী গ্রামের টুলু মিয়ার বাড়ি থেকে সাদা পোশাকের লোকজন সাইফুলকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরিবারের পক্ষ থেকে বার বার যোগাযোগ করা হলেও পুলিশ আটকের কথা অস্বীকার করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। সকালে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে গিয়ে পরিবারের লোকজন মরদেহ দেখে সাইফুল ইসলামকে সনাক্ত করেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।