আজ চিলমারী ব্রহ্মপুত্র নদে ঐতিহাসিক অষ্টমীর স্নান অনুষ্ঠিত হচ্ছে

নাজমুল হুদা পারভেজ (চিলমারী) কুড়িগ্রামঃ-
আজ কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের ডান তীরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সব থেকে বড় তীর্থ অষ্টমীর স্নান। সনাতন ধর্ম মতে চৈত্র মাসের শুক্ল পক্ষের অষ্টম তিথিতে যুগযুগ ধরে প্রাচীন নৌ বন্দর চিলমারীতে এই স্নানটি হয় এবং অষ্টমীরস্নান উপলক্ষে ৩ দিন ব্যাপী মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।
উক্ত হিসেব মোতাবেক ২৫ চৈত্র ১৪২৮ বাং ৯ই এপ্রিল শনিবার এবারের অষ্টমীরস্নান অনুষ্ঠিত হবে। এই দিনটিতে প্রতি বৎসর লাখ লাখ হিন্দু ধর্মালম্বী পূর্ণার্থীরা চিলমারীতে স্নান করতে আসে। স্থানীয় প্রশাসন এবারের স্নানের মুল স্থল নির্বাচিত করেছে উপজেলার রাজারভিটা সংলগ্ন ব্রহ্মপুত্র নদের তীর থেকে উত্তরে পুটিমারাী এবং রাজার ভিটা থেকে দক্ষিণে ব্যাঙ্গমারা নৌ ঘাট পর্যন্ত প্রায় ৫ কিলোমিটার নদীর তীরবর্তি এলাকা। সনাতন ধর্মীয়দের সূত্র মতে, এ বৎসর স্নানের লগ্ন রাত ১টা ১০ মিঃ থেকে বিকাল ১টা ৩০ মিনিট। এরমধ্যে উত্তম লগ্ন হলো সকাল ৮ টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত। এ ব্যাপারে চিলমারী মডেল থানার অফিসার -ইনচার্জ মোঃ আতিকুর রহমান জানান, অষ্টমীর স্নান ও মেলায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য সর্ব প্রকার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার সাহেব সরাসরি অষ্টিমীর স্নান এলাকার সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়টি মনিটরিং করছেন। অপর দিকে চিলমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহবুবুর রহমান জানান, সার্বিক পরিস্থিতি সন্তোষ জনক। কিছু কিছু হিন্দু পূর্ণাথীরা স্নান করার উদ্দেশ্যে ইতোমধ্যে চিলমারীতে আসতে শুরু করেছেন। দূর দূরান্তের পূর্ণার্থীদের রাত্রী যাপনের জন্য সকল স্কুল কলেজ সমূহে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এবং সেই সকল স্কুল কলেজ সমূহে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি আরও জানান কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্নান স্থল ও মেলার শৃঙ্খলা রক্ষায় অতিরিক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট নিয়োগ দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.