হাজার হাজার মানুষের ভালোবাসায় চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন খানসামা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু হাতেম

এস.এম.রকি, খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু হাতেম (৬৪) হাজার হাজার মানুষের ভালোবাসায় শায়িত হলেন।

বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে হৃদরোগ, কিডনী ও ডায়াবেটিস জনিতে কারণে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

শুক্রবার বিকেল ৩.৩০ টায় খানসামা সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়ে খানসামা কেন্দ্রীয় কবরস্থানে দাফনকার্য সম্পন্ন করা হয়।

ব্যক্তিজীবনে আবু হাতেম আওয়ামী লীগ রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালনের পর ১৯৯৪-২০১২ সাল পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হিসেবে ৩৫ বছর থেকে দায়িত্বে ছিলেন। তিনি খানসামা খানসামা মহিলা ডিগ্রি কলেজ ও খানসামা কামিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। এছাড়াও খানসামা ডিগ্রি কলেজ, খানসামা সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান এমপি, সহ- সভাপতি আলতাফুজ্জামান মিতা, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল, নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল, নীলফামারী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত ডাঃ এম আমজাদ হোসেন, সাবেক সাংসদ মিজানুর রহমান মানু, সাবেক সাংসদ আখতারুজ্জামান মিয়া, শিল্পপতি হাফিজুর রহমান, দিনাজপুর জেলার উপজেলা চেয়ারম্যানবৃন্দ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাশিদা আক্তার, এসিল্যান্ড মারুফ হাসান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও প্যানেল চেয়ারম্যান জনবন্ধু এটিএম সুজাউদ্দীন লুহিন শাহ, ওসি কামাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) মোস্তফা আহমেদ শাহ্ ও সাধারণ সম্পাদক সফিউল আযম চৌধুরী লায়নসহ ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ, সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার হাজার হাজার মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.