প্রেমিকের সাথে বিয়ে না হওয়ার অভিমানে খানসামায় এক কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

এস.এম.রকি, খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ প্রেমিকের সাথে বিয়ে না হওয়ার অভিমানে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় এক কলেজ ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।

মৃত্যু আশা আক্তার (১৮) উপজেলার খানসামা মহিলা কলেজের ছাত্রী এবং গোবিন্দপুর গ্রামের হলদিপাড়ায় আলাউদ্দিনের মেয়ে।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (১ এপ্রিল) দুপুরে গোবিন্দপুরের হলদিপাড়া প্রেমিকার বাসায়।

জানা যায়, ২০১৭ সাল থেকে একই উপজেলার আলোকঝাড়ি ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামের বানগাঁও এলাকায় বদিরুজ্জামানের ছেলে বিজিবি সদস্য প্রেমিক আঃ রহমানের সাথে প্রেমের শুরু আশার। প্রেমিক হোসেনপুর ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে বিজিবিতে যোগদান করে। আর প্রেমিকা খানসামা মহিলা কলেজে এইচএসসি ১ম বর্ষে পড়াশোনা করছে। প্রেমের এই ৪ বছরে প্রেমিক তাকে বিয়ের আশায় তারা ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে জড়িয়ে পরে।

কিন্তু বিজিবিতে চাকুরি হওয়ার পর প্রেমিক গোপনে অন্য মেয়েকে বিয়ে করার পরেও প্রেমিকার সাথে প্রেমের সম্পর্ক চালিয়ে যায়। এই বিষয়ে প্রেমিকা তার প্রেমিক রহমানের কাছে জিজ্ঞেস করলে সেটি গোপন রাখতে
প্রেমিক আশাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায় কিন্তু
প্রেমিকের পরিবার এটি মেনে না নেওয়ায় ঐ কিশোরী মারধর ও লাঞ্চনার স্বীকার হয়। এই অবস্থায় এক দূর সম্পর্কের চাচা প্রেমিকা আশাকে তার নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

এনিয়ে বাড়ির লোকজনও তাকে বকাবকি করলে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ফাঁকা বাড়ি পেয়ে শয়নকক্ষে গলায় ওড়না পেচিয়ে প্রেমিকা আশা আত্নহত্যা করে। পরে বাড়ির লোকজন টের পেলে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি দেখে চিকিৎসক উন্নতি চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আঃ রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে সেখানের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

এ বিষয়ে খানসামা থানার ওসি কামাল হোসেন বলেন, এ ধরনের অভিযোগ পাইনি। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.