ঝালকাঠিতে মারামারিতে জরায়ুতে আঘাতপ্রাপ্ত নারীর মৃত্যু

মোঃ মনির হোসেন ঝালকাঠি :
ঝালকাঠি পোনাবালিয়া ইউনিয়নের নরুল্লাপুর গ্রামে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মারামারির ঘটনায় জরায়ুতে আঘাতপ্রাপ্ত মিনারা বেগম (৫০) বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রবিবার দুপুর ১টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় অপারেশন থিয়েটারে মারা যান। চিকিৎসকরা জানান প্রচুর রক্তক্ষরণের তার মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য ,সদরের পোনাবালিয়া ইউনিয়নের নুরুল্লাপুর গ্রামে মারামারির ঘটনায় পদদলিত করে মিনারা বেগম (৫০) নারীর জরায়ুতে আঘাতপ্রাপ্ত হয় প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ হয়।
ঘটনার সূত্র নারিকেল গাছের ডাল (ড্যাগা) নেওয়াকে কেন্দ্র করে মারামারি করে প্রতিবশীরা। মিনারা বেগম ওই গ্রামের বাদল হাওলাদারের স্ত্রী। এ ঘটনায় মিনারা বেগমের ছেলে মাসুম হাওলাদার বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ রাতেই তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে। তাঁরা হলেন, মো. মিলন (৪৫), পিতা সাধু ফরাজী, মিলনের ছেলে মো. শান্ত (১৮) এবং মো. ফিরোজ (৩৫) পিতা সোহরাব ব্যাপারী।মিনারা ছোট ছেলে সাগর হাওলাদার বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় আমার মা বাড়ির পাশে একটি নারিকেল গাছের শুকনো গ্যাঁড়া আনতে গেলে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে প্রতিবেশী একই পরিবারের সোনিয়া (৪০), মো. ফিরোজ (৪০), মিলন ফরাজী (৪৫), মো. রিয়াজ (৩৫) মো শান্তসহ ( ১৮) আরও কয়েক জন জিআই পাইপ দিয়ে হামলা করেন। হামলার এক পর্যায়ে তাঁরা আমার মাকে পা দিয়ে পদদলিত করে। এতে আমার মায়ের জরায়ু ফেটে যায় এবং রক্তক্ষরণ শুরু হয়। আমার মাকে চার ব্যাগ রক্ত দেওয়ার পরেও বাঁচাতে পারিনি।
আমার মায়ের হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.