বাচসাসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বাদল-সম্পাদক রিমন মাহফুজ

মারুফ সরকার,বিনোদন প্রতিনিধি:
অগঠনতান্ত্রিক কর্মকাণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির বর্তমান কমিটির সভাপতি ফাল্গুনী হামিদ ও সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবুর প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করে তাদের অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিনিয়র সহ-সভাপতি বাদল আহমেদকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সহ-সাধারণ সম্পাদক রিমন মাহফুজকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রিমন মাহফুজ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি (বাচসাস)-এর কার্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদকের বরাত দিয়ে কিছু গণমাধ্যমে প্রকাশিত একটি সংবাদের প্রতি আমাদের দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে। সাধারণ সম্পাদকের বরাত দিয়ে প্রকাশিত উক্ত সংবাদে বলা হয়, কার্যনির্বাহী পরিষদের ১০ জনের পদ শূন্য ঘোষণা করে নতুন ১০ জনকে কমিটিতে কোঅপ্ট করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।বাচসাসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বাদল আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক রিমন মাহফুজ এই অগঠনতান্ত্রিক ও অসাংগঠনিক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কার্যনির্বাহী কমিটির ১০ জন সিনিয়র সহ-সভাপতি বাদল আহমেদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক রিমন মাহফুজ, সাংগঠনিক সম্পাদক রাহাত সাইফুল, আন্তর্জাতিক ও গবেষণা সম্পাদক শফিকুল আলম মিলন, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মুজাহিদ সামিউল্লাহ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবু সুফিয়ান রতন, নির্বাহী পরিষদের সিনিয়র সদস্য লিটন এরশাদ, অনজন রহমান, লিটন রহমান শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) এক সভায় মিলিত হয়।

ভারতে অবস্থানরত কার্যনির্বাহী সদস্য ইরানী বিশ্বাস সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। সভায় সভাপতিত্ব করেন বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি বাদল আহমেদ। সভা পরিচালনা করেন সহ-সাধারণ সম্পাদক রিমন মাহফুজ।

সভার শুরুতে কার্যনির্বাহী কমিটির ১০ জনের পদ বাতিলের সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা জানানো হয়। উক্ত সিদ্ধান্তকে অবৈধ ঘোষণা করে এই অগঠনতান্ত্রিক কর্মকাণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমান কমিটির সভাপতি ফাল্গুনী হামিদ ও সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবুর প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করে তাদের অব্যাহতি দেয়া হয়।

সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিনিয়র সহ-সভাপতি বাদল আহমেদকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সহ-সাধারণ সম্পাদক রিমন মাহফুজকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ব্যতিত অন্য পদের সবাই স্ব স্ব পদে বহাল থাকবেন। কমিটিতে যাদের কোঅপ্ট করা হয়েছে, তাদের কার্যনির্বাহী কমিটিতে অন্তর্ভুক্তি বাতিলের সিদ্ধান্তও নেয়া হয়েছে।

সভায় এই মর্মে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, এই কমিটি অতি শিগগিরই আরো একটি সভায় মিলিত হবে এবং বাচসাস নীতিমালা অনুযায়ী বর্তমান কমিটির মেয়াদ উর্ত্তীণ হয়ে যাওয়ায় এ ব্যাপারে সাধারণ সদস্যদের সাথে নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, বাচসাস ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। জন্মলগ্নে এর নাম ছিল ‘পাকিস্তান চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি’। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর নাম পরিবর্তন করে হয় ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি’, সংক্ষেপে ‘বাচসাস’।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.