ভারত ভ্রমণে লাগবে না স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র

শেয়ার করুন

আশানুর রহমান আশা বেনাপোল
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি নিয়ে করোনাকালীন বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে যাওয়ার শর্ত অবশেষে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

তাই এখন থেকে ভারত ভ্রমণের ক্ষেত্রে লাগবে না স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র। আবার করোনার দুই ডোজ টিকা গ্রহণকারী যাত্রীদের ভারত থেকে ফেরার পর আর ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন সূত্রে জানা গেছে, করোনাকালীন বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র নিয়ে বাংলাদেশি যাত্রীদের ভারতে চিকিৎসার জন্য অনুমতি দেওয়া হতো।সম্প্রতি ভারতীয় দূতাবাস বাংলাদেশি যাত্রীদের জন্য ভারতীয় ভিসা অফিস খুলে দেওয়ায় ভারত ভ্রমণের ওপর আরোপিত শর্ত প্রত্যাহার করা হয়েছে।

শার্শা উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মীর আলিফ রেজা জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা পেয়ে তারা রোববার থেকে কার্যক্রম শুরু করেছেন। ভারত ভ্রমণের ক্ষেত্রে এখন আর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কোনো ছাড়পত্র লাগবে না। শুধু ভিসা আর করোনা নেগেটিভ সনদ থাকলে যাত্রীরা যেতে পারবেন।

তিনি বলেন, ভারত থেকে ফিরে যাদের করোনা টিকার দুই ডোজ নেওয়া আছে, তাদের প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টাইন না লাগলেও বাড়িতে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। তবে ভারতে ফেরার আগে ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের অনুমতি লাগবে।

ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহসান হাবিব জানান,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রত্যয়নপত্র প্রদানের শর্ত তুলে নেওয়ায় বেনাপোল দিয়ে ভারতগামী যাত্রীর সংখ্যা বাড়ছে।

তবে শর্তানুযায়ী ভারত ভ্রমণের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে প্রত্যেক যাত্রীকে কোভিড-১৯ নেগেটিভ সনদ অবশ্যই ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রদান করতে হবে।

ভারত থেকে দেশে ফেরার সময় দূতাবাস থেকে ছাড়পত্র আনতে হবে। শর্তানুযায়ী ভারত-ফেরত যাত্রীদের মধ্যে যাদের দুটি টিকা নেওয়া আছে, তাদের দেশে ফিরে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না। তবে যারা একটি টিকা গ্রহণ করেছেন, তাদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে বলেও জানান তিনি।

রোববার ভারত থেকে ৯০ জন মেডিকেল ভিসায় পাসপোর্ট যাত্রী এসেছেন। তাদের মধ্যে ১১ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে এবং ৭৯ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। তবে টুরিস্ট ভিসা আপাতত বন্ধ আছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *