ভাল গল্প ও চরিত্র পেলে বড় পদার্য় কাজ করতে আগ্রহী নাহার কনা

মারুফ সরকার ,বিনোদন প্রতিনিধি :
শামসুন নাহার কনা ছোট বেলার বাবা-মায়ের দেয়া নামটি নাহার কনা’র নামের আড়ালে চলে গেছে। এখন তিনি রঙ্গীন জগতে নাহার কনা নামে পরিচিত।

পিতার চাকরীর সুবাদে রাজধানী ঢাকাতেই জন্ম নাহার কনার। পড়া লেখা করেছেন বিটিসিএল স্কুলে। পরে সিদ্ধেশ্বরী গার্স কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক। এরপর উচ্চ শিক্ষা একই কলেজে।

উচ্চ শিক্ষিত হযেও চাকরীর জন্য দৌড়াননি। নিজের বন্ধু-বান্ধবদের উৎসাহে সুন্দরী এই অভিনেত্রী ২০১৮ সালে একটি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করে মিডিয়া জগতে আলোড়ন তোলেন।

কথা হয় এই অভিনেত্রীর সাথে খুটিনাটি বিষয় নিয়ে। নাহার কনা জানালেন, শখের বশেই মিডিয়ায় কাজ করেছিলেন নাহার কনা। এখন হয়ে উঠেছেন ব্যস্ত অভিনেত্রী।

নাটকের পাশাপাশি কাজ করছেন মিউজিক ভিডিওতে। জয় সরকারের ‘আজব রঙের মানুষ’ ও হাসান জাহাঙ্গীর পরিচালিত বৈশাখী টিভিতে প্রচারিত ‘চাপাবাজ’ নাটকে তার অভিনয় দর্শকদের মন কেড়েছে। ইতোমধ্যে অনেকগুলো মিউজিক ভিডিও করেছেন যা ইউটিউবে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে। সোস্যাল মিডিয়াতেও সমান তালে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন নাহার কনা।

বর্তমানে কাজ করছেন তন্ময় খানের ‘শেষ উপহার’, জহির খানের ‘আমার বাড়ি মেঘের বাড়ি’, আতিক হাসান বাবলুর ‘চিৎকার’ এবং সাঈদ রহমান পরিচালিত ‘ভাই বিয়ে করবে’ নামে কয়েকটি নাটকে।

নিজের ব্যস্ততা প্রসঙ্গে কনা বলেন, ‘নাটকে নিয়মিত হতে চাই। নায়িকা মূল কথা নয়, অভিনয় ফুটিয়ে তোলার মতো চরিত্র পেলেই আমি খুশি। ভালো গল্প পেলে যে কোনো চরিত্রে অভিনয় করার সাহসী সিদ্ধান্ত নিতেও আমার আপত্তি নেই।’

ব্যক্তিগত জীবন সম্প‌র্কে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ২০১২ সালে ব্যাংকারের সাথে বিয়ে হয়। ব্যাংকার স্বামী তাকে মিডিয়া জগতের কাজে খুব সার্পোট দেন। নাহার কনা নিজের সৌন্দয সচেতন। নিয়মিত ব্যায়াম, জিম, সাইকেল চালানো শত কাজের মাঝেও বাদ দেন না। ৫ ফুট ৪ ইঞ্চির উচ্চতার সাথে মানানসই শারীরীক গড়ন নজর পড়ে সকলের।

নাহার কনা জানান, ভাল গল্প ও চরিত্র পেলে বড় পদায় কাজ করতে অভিনয় করতে চান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.