কুড়িগ্রামের রৌমারীতে আগুনে পুড়ল দিনমজুরের সর্বস্ব

রৌমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে সাহাদ আলী নামের এক দিনমজুরের বাড়ীতে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডে টিনশেডের একটি বসত ঘর, জিনিসপত্র ও দুইটি ছাগল সহ প্রায় ২ লক্ষ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই হয়েছে।
মঙ্গলবার (১ মার্চ) গভীর রাতে উপজেলার দাঁতভাঙ্গা শালুর মোড় এলাকায় এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারটি প্রতিদিনের ন্যায় নিজ বসত ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। গভীর রাতে ঘরের বেড়ায় আগুন দেখতে পেয়ে স্বপরিবার প্রাণ রক্ষায় ঘরের বাহিরে যান। পরে তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন আগুন নেভাতে এগিয়ে আসে। ততক্ষণে আগুনের লেলিহান শিখা বসত ঘরের চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে বসতঘর ও ঘরের একপাশে থাকা দুইটি ছাগল, জিনিস পত্র সহ প্রায় ২ লক্ষ টাকার মালামাল পুড়ে যায়। পরে খবর পেয়ে কর্তিমারী ফায়ার সার্ভিস স্টেশন ঘটনাস্থলে আসেন এবং আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির মালিক দিনমজুর সাহাদ আলী বলেন, দুইটি ছাগল, বসত ঘর সহ বসত ঘরে থাকা সর্বস্ব পুড়ে ছাই হয়েছে। এতে করে আমি দিশেহারা হয়ে পড়েছি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে দাঁতভাঙা ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মিজানুর রহমান বলেন, বাড়ির মালিক সাহাদ আলী পেশায় একজন দিনমজুর। তার কোন আবাদী জমি নেই। অগ্নিকান্ডে বসত ঘর, জিনিসপত্র সহ দুটি ছাগল পুড়ে গেছে। এতে করে পথে বসে গেল সে। অগ্নিকাণ্ডে তার প্রায় ২ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে।
এ বিষয়ে কর্তিমারী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খোরশেদ আলম প্রধান বলেন, আমরা খবর পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে যাই এবং দীর্ঘ সময় চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে।

এ ব্যাপারে রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আল ইমরান বলেন, বিষয়টি কেউ আমাকে জানায়নি। এ বিষয়ে আবেদন দিলে তাকে সহায়তা প্রদান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.